ড্রাইভার ও হেলপার পেশার আড়ালে তৈল চুরি, র‌্যাব-১১র হাতে আটক-২ - আজকের সংবাদ

সদ্য পাওয়া

Home Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

Post Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১

ড্রাইভার ও হেলপার পেশার আড়ালে তৈল চুরি, র‌্যাব-১১র হাতে আটক-২


ড্রাইভার ও হেলপার পেশার আড়ালে তৈল চুরি, র‌্যাব-১১র হাতে আটক-২


পাভেলঃ-র‌্যাব-১১র অভিযানে নারায়ণগঞ্জের চিটাগাং রোড থেকে জ্বালানী তেল চোরাই চক্রের দুই চোরকে গ্রেফতার করা হয়।এসময় তাদের কাছ থেকে  সাড়ে ১৩ হাজার লিটার জ্বালানী তেলভর্তি ট্যাংক লরী জব্দ করা 

বৃহস্পতিবার(২৪জুন)রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১র কএকটি আভিযানিক দল সিদ্ধিরগঞ্জ থানার  চিটাগাং রোড এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতরা হলোঃ মোঃ বাহাউদ্দিন ওরফে বাতেন (৪৮) ও মোঃ আঃ সাত্তার ওরফে সোহাগ (৩৮)। 

উক্ত অভিযানে সাড়ে ১৩ হাজার লিটার চোরাই জ্বালানী তেলের উপজাত পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ ন্যাপথা ও ০১টি ট্যাংক লরী জব্দ করা হয়। 

র‌্যাব-১১র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ জসিম উদ্দীন চৌধুরী(পিপিএম)জানান,এই সংঘবদ্ধ চোরাই চক্র দীর্ঘদিন যাবৎ দেশের বিভিন্ন জায়গা হতে অসাধু উপায়ে জ্বালানী তেলের উপজাত পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ ন্যাপথা সংগ্রহ করে পেট্রোল পাম্পগুলোতে সরাবরাহ করে আসছে। ন্যাপথা মূলত ক্যামিকেল কোম্পানীগুলোতে ব্যবহার করা হয়। ইঞ্জিন চালিত গাড়ীতে ব্যবহৃত জ্বালানী তেল পেট্রোলের তুলনায় ন্যাপথার বাজার মূল্য অনেক কম হওয়ায় উক্ত চোরাই চক্র অবৈধভাবে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য পেট্রোলের সাথে ন্যাপথা মিশিয়ে গাড়ীর মালিকদের কাছে বিক্রয় করে প্রতারণামূলকভাবে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। জ্বালানী তেল পেট্রোলের সাথে মিশ্রিত পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ ন্যাপথা ব্যবহারের ফলে গাড়ীর ইঞ্জিন মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। 

দীর্ঘ অনুসন্ধানের পর উক্ত চোরাই চক্রকে সনাক্ত করতে সক্ষম হয় র‌্যাব-১১ একটি আভিযানিক দল। অতঃপর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার র‌্যাব-১১র একটি আভিযানিক দল নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার চিটাগাং রোড এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চট্টগ্রামগামী পাকা রাস্তার উপর চেকপোষ্ট স্থাপন করে জ্বালানী তেলবাহী বিভিন্ন ট্যাংকলরী তল্লাশীকালে সাড়ে ১৩ হাজার লিটার চোরাই পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ ন্যাপথা ভর্তি ০১টি ট্যাংকলরীসহ  ২জন চোরকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়। উক্ত চোরাই জ্বালানী তেলের উপজাত পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ ন্যাপথা পরিবহনের বৈধ কাগজপত্র দেখতে চাইলে গ্রেফতারকৃত আসামীরা কোন কাগজপত্র দেখাতে পারে নি।পরবর্তীতে নিবিড় জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে গ্রেফতারকৃত আসামীরা স্বীকার করে, তারা সংঘবদ্ধ তেল চোরাই চক্রের সক্রিয় সদস্য। ড্রাইভার ও হেলপার পেশার ছদ্মবেশ ধারন করে দীর্ঘদিন যাবৎ পরষ্পর যোগসাজশে তারা দেশের বিভিন্ন স্থান হতে অসাধু উপায়ে ক্যামিকেল কোম্পানীতে ব্যবহৃত জ্বালানী তেলের উপজাত পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ ন্যাপথা সংগ্রহ করে এবং আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার পেট্রোলিয়াম পাম্পগুলোতে সরাবরাহ করে আসছে। 

তিনি আরও বলেন,গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

 


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭