রয়েল স্পেশালাইজ্ড হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ - আজকের সংবাদ

সদ্য পাওয়া

Home Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

Post Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

রয়েল স্পেশালাইজ্ড হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ


রয়েল স্পেশালাইজ্ড হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ





আজকের সংবাদ ডেস্কঃ সোনারগাঁয়ে রয়েল স্পেশালাইজ্ড হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় সুলতানা নামের এক প্রসূতির  মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
মঙ্গলবার(১৭সেপ্টেম্বর) বিকালে রয়েল স্পেশালাইজড হাসপাতালে প্রসূতি স্বজনরা প্রসূতি(সুলতানা)কে সিজার করাতে হাসপাতালে ভর্তি করে,সিজারের পরে গতকাল বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়।





প্রসূতির স্বজনরা জানান,সোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া চৌরাস্তার কলেজ রোডের রশিদ প্লাজায় রয়েল স্পেশালাইজড হাসপাতালে গত মঙ্গলবার বিকালে প্রসূতির স্বামী মোহাম্মদ আলী তার স্ত্রী সুলতানাকে নিয়ে গেলে সেখানে গাইনী ডাক্তার ফারহানা তার স্বামীকে বলেন সুলতানাকে দ্রুত সিজার করতে হবে নয়ত রোগীর সমস্যা হতে পারে,এই বলে হাসপাতালে ভর্তি করান।
এ কথা শুনে সুলতানার স্বামী ভয় পেয়ে যান এবং বলেন আলট্টাসোনোগ্রাম করা ছাড়া কি তাকে সিজার করা যাবে?এ সময় ডাক্তার ফারহানা বলেন করা যাবে কোন সমস্যা হবে না। এই বলে ডাঃ ফারহানা সুলতানা কে দ্রুত সিজার করতে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যান। অপারেশন থিয়েটারে নেয়ার পর সন্ধ্যার দিকে সুলতানা একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেয়।
তার কিছুখন পরই ডাক্তার জানান, সুলতানার জরায়ুর ফুল(প্যালাসেন্টা)কেটে গেছে।আলট্টা সোনোগ্রামের সময় জরায়ুর ফুলটি শিশুর নিচে না উপরে ছিল সেটি বুঝা যায়নি। তাই সিজার করার সময় জরায়ুর ফুলটি কেটে গিয়ে রক্তাক্ত হচ্ছে এজন্য রক্ত লাগবে। এ সময় তার আত্মীয় স্বজনরা ৩ ব্যাগ রক্ত যোগার করে রক্ত দেয় রক্ত দেয়ার পরও সুলতানার রক্ত বন্ধ না হলে তাকে চিটাগাং রোড প্রোএকটিভ হাসপাতালে প্রেরণ করেন ডাক্তার ফারহানা। সেখানে অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে স্কয়ার হাসপাতালে প্রেরণ করলে।
স্কয়ার হাসপাতালে আবার সুলতানাকে অপারেশন করা হলে শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতি হলে ডাক্তার তাকে আইসিওতে রাখেন।আইসিওতে রাখার পট গতকাল বুধবার রাত ১০টার দিকে সুলতানা মারা যান।
এ ব্যাপারে স্থানীয় লোকজন জানান রয়েল হাসপাতালের বিরুদ্ধে এর আগেও নানান অভিযোগ রয়েছে,অনেক টাকার বিনিময়ে  অবৈধভাবে এম আর,ডিএনসি, এবশন  করে থাকে তারা। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে এখানে  অবৈধ পন্থায় চিকিৎসা করা হয়। এ ব্যাপারে আমরা প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।





এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ডাক্তার ফারহানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া গেছে।





এ ব্যাপারে সোনারগাঁ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হালিমা সুলতানা জানান,এ ঘটনা শুনার পর আমি হাসপাতাল পরিদর্শন করে মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জেন অফিসে রির্পোট পাঠিয়েছি। রির্পোট আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।





এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান মনির বলেন,এ ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ পাইনি তবে যদি অভিযোগ পাই তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী অফিসার অন্জন কুমার সরকার জানান, হাসপাতালের ব্যাপারগুলো নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জেন দেখেন। পর পর দুটি মাতৃ মুত্যুর ঘটনা দুঃখ জনক উল্লেখ করে তিনি জানান সিভিল সার্জেন রোগী মৃত্যুর ঘটনায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি করে দিয়েছেন। রির্পোট আসার পর হাসপাতালের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।






কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭