স্বামী ও শশুরবাড়ীর নির্যাতনে গৃহবধূর মৃত্যর অভিযোগ - আজকের সংবাদ

সদ্য পাওয়া

Home Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

Post Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

স্বামী ও শশুরবাড়ীর নির্যাতনে গৃহবধূর মৃত্যর অভিযোগ


স্বামী ও শশুরবাড়ীর নির্যাতনে গৃহবধূর মৃত্যর অভিযোগ।





আজকের সংবাদ ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলাধিন সনমান্দী ইউনিয়নের মারবদী এলাকায় স্বামী এবং শশুরবাড়ীর লোকজনের নির্যাতনে মানসুরা(২৪) নামের এক সন্তানের জননীর নির্মম হত্যার অভিযোগ উঠেছে।
সোমবার(২রা সেপ্টেম্বর) দূপুর ৩ টায় নিহত মানসুরার লাশ উদ্ধার করে সোনারগাঁ থানা পুলিশ।





নিহত গৃহবধূ মানসুরার স্বামী মারবদী এলাকার নজরুল মিয়ার ছেলে সফিকুল ইসলাম।





নিহত মানসুরার বাবা মুজিবুর মিয়া এবং তার পরিবারের দাবী মানসুরাকে তার স্বামী শফিকুল ইসলাম এবং শশুর বাড়ীর লোকজন হত্যা করে লাশ ঘরের মেঝেতে ফেলে রেখে পালিয়েছে।ঘটনার পর থেকেই স্বামীসহ শশুর বাড়ীর সবাই পলাতক রয়েছে।





নিহত মানসুরা একই উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মুছারচর এলাকার মুজিবুর মিয়ার মেয়ে।





পুলিশ ও এলাকাবাসীর তথ্যমতে,নিহত মানসুরার সাথে তার স্বামী এবং শশুর বাড়ীর লোকজনের সাথে প্রায় সময় ঝগড়া হতো। বেলা১১ টার দিকেও ঝগড়া হয়।ঝগড়ার সময়ই মানসুরাকে হত্যা করে ঘরের মেঝেতে ফেলে রেখে সবাই পালিয়ে গেছে বলে দাবী নিহতের পরিবারের।





সোনারগাঁ থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক রুস্তম আলী বলেন,গৃহধুর মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছি।তবে নিহত মানসুরার স্বামী অথবা শশুর বাড়ীর কাউকে পাওয়া যায়নি।নিহত মানসুরার গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। মানসুরার মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ে ময়নাতদন্তের জন্য  জেলা হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।





এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান মনির জানান,নিহত গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলমান রয়েছে।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭