সোনারগাঁয়ে অবৈধ বালু ভরাটের মাধ্যমে চলছে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের মহা উৎসব - আজকের সংবাদ

সদ্য পাওয়া

Home Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

Post Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

সোমবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সোনারগাঁয়ে অবৈধ বালু ভরাটের মাধ্যমে চলছে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের মহা উৎসব


সোনারগাঁয়ে অবৈধ বালু ভরাটের মাধ্যমে চলছে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের মহা উৎসব


সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃবর্তমানে জনসংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি কমছে ফসলি/আবাদী জমি। অপরিকল্পিত ভাবে দিনদিন বাড়ছে বড় বড় স্থাপনা নির্মাণের কাজ। আইন না জেনে যারা ঘর-বাড়ি ও বহুতল স্থাপনা নির্মাণ করছে তাদের জানতে হবে ইচ্ছে হলেই কেউ নিজের জমির শ্রেণী পরিবর্তন করতে পারে না। এ জন্য জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে অনুমতি নেয়ার বিধান রয়েছে। সবকিছু জানা সত্ত্বেও নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা শিল্পনগরী এলাকায় একটি প্রভাবশালী মহলের ইশারায় চলছে আবাদী জমির শ্রেণী পরিবর্তনের মাধ্যমে অবৈধ বালু ভরাটের মহাউৎসব।


জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার অনুমতি ছাড়া কেউ জমির শ্রেণী পরিবর্তন করতে পারবেন না বললে জানালেও সোনারগাঁ উপজেলায় প্রভাবশালী মহল ও ইন্ডাস্ট্রিয়ালিস্টরা তা মানছেন না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।


সোমবার (৮ফেব্রুয়ারি)সকালে সরেজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের মালিকানাধীন উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের মেঘনা শিল্পনগরীর চর রমজান সোনাউল্যাহ মৌজার ৭১৫.২৮ শতাংশ জমি মেসার্স তুলি এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান অবৈধ বালু ভরাট করছেন।


চর রমজান সোনাউল্যাহ মৌজার আরএস ৪০০১, ৪০০২, ৪০০৩, ৪০০৪, ৪০০৫, ৪০০৬, ৪০০৭, ৪০০৮, ৪০০৯, ৪০১০, ৪০১১, ৪০১২, ৪০১৩, ৪০১৪, ৪০১৫, ৪০১৬, ৪০১৭, ৪০১৮, ৪০১৯, ৪০২০, ৪০২১, ৪০২৩, ৪০২৫, ৪০২৬, ৪০২৮, ৪০২৯ দাগের মোট ৪৩৩.৫০ কাঠা জমির আবাদী জমির শ্রেণী পরিবর্তনের কাজ করছেন মেসার্স তুলি এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, জমির শ্রেণী পরিবর্তন এখন আর কেউ দেখে না। এসিল্যান্ড অফিসে কথা বলা আছে।


তিনি আরো জানান, কোম্পানির কাছ থেকে আমি আবু হানিফ, জহির, সেলিম মেম্বার, আলমসহ আরো কয়েকজন মিলে বালু ভরাটের কাজ টা নিয়েছি। 


স্থানীয় পিরোজপুর ইউপি মেম্বার সেলিম মিয়া জানান, জমির বালু ভরাটের কাজ টা মূলত করছে এলাকার একটি সিন্ডিকেট। তাদের সাথে কোম্পানীর (হাজী সেলিমের) কোন কথা হয়েছে কিনা জানা নেই। আর এই ঘটনার সাথে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই।



উল্লেখ্য যে, ২০১৯ সালে ভোগান্তি কমাতে ভূমির শ্রেণি এক হাজার ১২৪টি থেকে কমিয়ে ১৬টি করেছে সরকার। ভূমির শ্রেণির জটিলতা সহজ করে মানুষের হয়রানি বন্ধে এ পদক্ষেপ নিয়েছিলো ভূমি মন্ত্রণালয়। বর্তমানে সব ধরনের ভূমিকে বন, পাহাড়, নদী, জলাভূমি, রাস্তা, টার্মিনাল, বন্দর, আবাদি, আবাসিক, অফিস, বাণিজ্যিক, শিল্প, বিনোদনকেন্দ্র, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, স্মৃতিস্তম্ভ ও ধর্মীয় স্থান- শ্রেণিতে বিভক্ত করে পরিপত্র জারি করা হয়েছে। এখন থেকে হাল জরিপের ক্ষেত্রে এসব শ্রেণি প্রযোজ্য হবে বলে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছিল। আর এসব জমির কোনটির শ্রেণী পরিবর্তন নিষিদ্ধ ঘোষনা করে সরকার।


সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম মুস্তাফা মুন্না জানান, জমির শ্রেণী পরিবর্তন করে অবৈধ বালু ভরাটের ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত আমার দেয়ার এখতিয়ার নেই। আর এর সাথে আমার সম্পৃক্ততার কোন প্রশ্নই আসে না। 


উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতিকুল ইসলাম জানান, মেঘনা শিল্পনগরী এলাকায় অবৈধ বালু ভরাটের মাধ্যমে আবাদী/ফসলী জমির শ্রেণী পরিবর্তনের ঘটনা আমি মাত্রই শুনলাম,এব্যাপারে খুব শীঘ্রই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭