সরকারি মুড়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজটি ছিলো প্রাচীন জমিদার বাড়ী - আজকের সংবাদ

সদ্য পাওয়া

Home Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

Post Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০১৯

সরকারি মুড়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজটি ছিলো প্রাচীন জমিদার বাড়ী


সরকারি মুড়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয়  কলেজটি ছিলো  প্রাচীন জমিদার বাড়ী





মোঃ শাকিল আহম্মেদ রূপগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মুড়াপাড়া রাজ-বাড়ীটি ৬২ বিঘা জমির উপর অবস্থিত। এই জমিদার বাড়ীটি তৈরি করেন বাবু রাম রতন ব্যানার্জী যিনি এই অঞ্চলে মুড়াপাড়া জমিদারি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এর পর তার কয়েক জন বংশদর কর্তৃক প্রসাদটি সংস্কার ও সম্প্রাসারণ করা হয়। ১৮৮৯ খ্রিস্টাব্দে জমিদার প্রতাপচন্দ ব্যানার্জী এই ভবনের পিছনে অংশ সম্প্রসারন করেন ও পরিবার নিয়ে এখানেই বসবাস শুরু করেন। তার পুত্র বিজয়চন্দ্র ব্যানার্জী ১৮৯৯ খ্রিস্টাব্দে প্রসাদের সামনের অংশে একটি ভবন নির্মান ও দুটি পুকুর খনন করেন। ১৯০৯ খ্রিস্টাব্দে তার দুই পুত্র জগদীশ চন্দ্র ব্যানার্জী ও আশুতোষ চন্দ্র ব্যানার্জী কর্তৃক প্রসাদের দোতালার কাজ সম্পন্ন হয়। ১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে ভারত উপমহাদেশ বিভক্ত হওয়ার পর জগদীশ চন্দ্র তার পরিবার নিয়ে কলকাতায় গমন করেন। এর পর থেকে বাড়িটি পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিল। ১৯৪৮ খ্রিস্টাব্দে তৎকালীন পাকিস্তান সরকার বাড়ীটি দখল নেয় এবং এখানে হাসপাতাল ও কিশোরী সংশোধন কেন্দ্রের কার্যক্রম শুরু করে। ১৯৬৬খ্রিস্টাব্দে এখানে স্কুল ও কলেজের কার্যক্রম করা হত। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৮৬ খ্রিস্টাব্দে বাংলাদেশ অধিদপ্তর বাড়ীটির দায়িত্ব গ্রহন করে সেটিকে প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা হিসাবে তালিকাভুক্ত করে।





বর্তমানে এটি সরকারি মুড়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয়  কলেজ নামে পরিচিত।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭