নারী শ্রমিককে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষনের অভিযোগ - আজকের সংবাদ

সদ্য পাওয়া

Home Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

Post Top Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭

মঙ্গলবার, ২ জুলাই, ২০১৯

নারী শ্রমিককে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষনের অভিযোগ


নারী শ্রমিককে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষনের অভিযোগ





আজকের সংবাদ ডেস্কঃ নারায়ণগন্জের সোনারগাঁয়ে এক নারী শ্রমিককে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ঘটনায় ওই নারী শ্রমিককের পিতা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।





পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,সোনারগাঁ উপজেলায় জসিম উদ্দিন তার পরিবার নিয়ে কাঁচপুর ইউনিয়নের পূর্ব বেহাকৈর এলাকার রহমানের বাড়ীতে ভাড়াটিয়া হিসাবে বসবাস করছেন।
পার্শ্ববর্তী ইউসুফ আলী ও নুরুল ইসলামের বাড়িতে জামদানি বুননের কাজ করতো জসিম উদ্দিনের মেয়ে।
ইউসুফ আলী কাজের সুবাদে বিভিন্ন কথাবার্তা বলে বিয়ের প্রলোভনে ফুসলিয়ে নুরুল ইসলামের সহায়তায় বৎসর খানিক যাবত বিভিন্ন সময়ে ধর্ষণ করে আসছে।





ধর্ষণের ফলে মেয়েটি তিন মাসের অন্তঃস্বত্বা হয়ে পড়লে পরিবার জানতে পেরে ধর্ষিতার পরিবার ইউসুফ আলীকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে টালবাহানা শুরু করে।
এক পর্যায়ে ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হয়ে গেলে এলাকার কতিপয় প্রভাবশালীরা বিবাদী নুরুল ইসলাম ও ইউসুফকে বাঁচাতে ধর্ষিতার পরিবারকে মামলা না করার জন্য চাপ প্রয়োগ করে বিচার সালিশের মাধ্যমে মিমাংসা করার আশ্বাস দিয়ে ধর্ষিতাকে বিবাদী নুরুল ইসলামের বাড়িতে কৌশলে আটকে রেখে পেটের বাচ্চা নষ্ট করে ফেলে।
ধর্ষিতার বাবা জসিম উদ্দিন খবর পেয়ে আহত অবস্থায় তার মেয়েকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সোনারগাঁ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তারই প্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার রাতে বিবাদী ইউসুফ আলীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ।





সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মনিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় আসামী ইউসুফ আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং অপর আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্ঠা অব্যাহত আছে।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৯২৬৮৭০৭২৭